বাউল বেহাল শাহ -এর মূল্যবান পান্ডুলিপি বিলুপ্তির পথে।

বেহাল শাহ এর রচিত গানের সঠিক সংখ্যা নিরুপন করা কঠিন। এ যাবৎ তার গানের সামান্যতম অংশ বিভিন্ন গবেষকরা সংগ্রহ করেছেন। আর অধিকাংশ রচনা বাউল শিল্পীদের মুখে মুখে।

ডায়াবেটিস ও উচ্চরক্তচাপঃ ভয়ঙ্কর দু’টি নীরব ঘাতক (পর্বঃ ৩)

গত দুই পর্বে আমি ডায়াবেটিস ও তার জটিলতা সম্পর্কে বলেছি। যদি আপনারা আমার লেখাগুলো পড়ে থাকেন, (না পড়ে থাকলে ডায়াবেটিস ও উচ্চরক্তচাপঃ ভয়ঙ্কর দু'টি...

কালের সাক্ষী এলাহী সাপুড়ে।

আলমডাঙ্গার বন্ডবিল গ্রামের এলাহী সাপুড়ে । এই মানুষটা সাপের টুটি চেপে ধরে খেলা দেখিয়ে আলমডাঙ্গা এলাকার মানুষকে আনন্দ দিয়েছে।

ধর্ষণ বিরোধী মানববন্ধন এবং মৌন মিছিল

দেশে ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়া ধর্ষণ পরিস্থিতির প্রতিবাদে আজ রবিবার জামজামি বাজারে জামজামি ইউনিয়ন ছাত্র সমাজ কালো মাস্ক পড়া অবস্থায় ধর্ষণ বিরোধী মানববন্ধন এবং মৌন...

ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ; ভয়ঙ্কর দু’টি নীরব ঘাতক (পর্ব-০২)

ডায়াবেটিসে আক্রান্তের হার বাড়ছে কেন? ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ; ভয়ঙ্কর দু'টি নীরব ঘাতক (পর্ব-০১) -এ আমি বলেছিলাম ডায়াবেটিসে আক্রান্তের হার প্রতিনিয়তই বাড়ছে। বাংলাদেশে প্রতি...

হোক প্রতিবাদ প্রতিটি ধর্ষণের বিরুদ্ধে

আলিফউদ্দিন মোড় থেকে প্রধান সড়কে সকলের সাথে সমবেত হয়ে একাত্মতা ঘোষনা করে প্রতিবাদ জানান আলমডাঙ্গার সকল স্তরের মানুষ।

আলমডাঙ্গার ইতিহাস

আলমডাঙ্গা অঞ্চলের হারিয়ে যাওয়া দুটি লোকজ তন্ত্রমন্ত্র!!

আমরা দেখতে পাই আমাদের আলমডাঙ্গার সমাজ জীবনের পরতে পরতে একসময় নানা ধরণের লোকজ তন্ত্রমন্ত্র ব্যবহার হতো, ক্ষীণ ধারায় এখনও আছে। এমন কি পিঠা নষ্ট করার পর্যন্ত মন্ত্র আছে।

কুমার তীরের আলমডাঙ্গা; আলমডাঙ্গার ইতিহাস!

আলমডাঙ্গা নামকরণকে কেন্দ্র করে একটিবহুল প্রচলিত কিংবদন্তী এ অঞ্চলের আবাল-বৃদ্ধ-বণিতারমুখে মুখে শোনা যায়। এক বান-ভাসীবৃদ্ধা নান্দায় চড়ে আলমডাঙ্গার কূলে ভিড়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ছেড়ে বলে উঠে, “আলাম ডাঙ্গায়”। সেই থেকে নাকি আলমডাঙ্গা নামের উৎপত্তি।

লোক চক্ষুর অন্তরালে থেকে যাওয়া আমাদের কুবির গোঁসাই ।

প্রেমতত্ত্বমূলক কথাগুলোর রচয়িতা আলমডাঙ্গা উপজেলাধীন জামজামী ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামের যুগীতাঁতি সম্প্রদায়ের সাধক কুবির গোঁসাই(১৭৮৭-১৮৭৯) এর।

আলমডাঙ্গার মিষ্টি গাঁথা।

মিষ্টি প্রস্তুতকারীদের হাতে এই শহরের পত্তন হলেও দেশবিখ্যাত কোনো মিষ্টির ব্রান্ড আলমডাঙ্গার মিষ্টি প্রস্তুতকারীরা সৃষ্টি করতে পারে নি। তবে ময়রা এবং গণ্ডকদের ধারা একেবারে বিলীন হয়ে গেছে এমনটাও বলা যায় না। ‘কালিপদ মিষ্টান্ন ভান্ডার’ হয়ত সেই ধারারই উত্তরসূরি।

মোড়ভাঙ্গার রসগোল্লা গাঁথা।

মোড়ভাঙ্গার রসোগল্লার রস তৈরি করতে জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার হতো শুকনা বাবলা গাছের কাঠ এবং রস অর্থ্যাৎ চিনির সিরা তৈরির পদ্ধতিও ছিল প্রচলিত সিরা তৈরির পদ্ধতি থেকে ভিন্ন। যার জন্য সময় যেমন লাগতো তেমন মিষ্টিও এক খোলায় এক থেকে দেড় কেজির বেশি হতো না।

খোলা জানালা

ষাট-সত্তর দশকে বেড়ে ওঠা তরুণদের যাপিত জীবন

ষাট এবং সত্তর দশকে আলমডাঙ্গায় বেড়ে ওঠা একজন মানুষের তখনকার তরুণদের যাপিত জীবন।

সেই সময়ঃ শীত নিদ্রায় যাওয়ার আগে স্মৃতিকাতরতা

যখন বুঝতে শিখেছিলাম তখন দেখেছি অনেকগুলো ক্লাব ছিল আলমডাঙ্গায়। ফ্রেন্ডস ক্লাব, ব্রাদার্স ইউনিয়ন, টাইগার ক্লাব, রেইনবো ক্লাব, টারজান ক্লাব, গোবিন্দপুরের সোনালি সংঘ এগুলো ছিল নামকরা। এছাড়া প্রায় সব গ্রামেরই একটা নিজস্ব একাদশ ছিল। কোন কোন গ্রামে একের অধিক একাদশও ছিল। খেলা যায় এমন সব জায়গায় বিকাল বেলা কোন না কোন খেলা নিয়ে শিশু-কিশোর-তরুণরা মেতে থাকতো। নিজেরাই উদ্যোগী হয়ে ছোট বড় ফুটবল, ক্রিকেট বা ব্যাডমিন্টন লীগের আয়োজন করতো। ইন্টার স্কুলের খেলাগুলো নিয়ে ছিল মাতামাতি। সবগুলো ক্লাব থেকে যাচাই করে ভাল সেরা খেলোয়াড় নিয়ে গঠিত হতো আলমডাঙ্গা একাদশ।

অনন্ত রাত্রি

আলমডাঙ্গা রেলস্টেশানে তাঁর পাশে আমি দাঁড়িয়ে আছি। বাইরে মুষলধারে বৃষ্টি। গাঢ় অন্ধকার রাত। তাতে আবার দমকা হাওয়া এবং অন্যান্য সব মিলিয়ে পরিবেশটা স্যার আরথার কোনান ডয়েলের কোন একটা গোয়েন্দা কাহিনীর দৃশ্যের মত হয়ে উঠেছে। স্টেশানে মাত্র দুই-চারজন লোক। তারা তাদের মত বসে আছে চুপচাপ।

অস্তরাগে স্মৃতি সমুজ্জ্বল প্রিয় বিদ্যাপীঠ

স্কুলটাকে ঘিরে আমার মতই অজস্র স্মৃতি জমে আছে স্কুলটির সহস্র ছাত্র-ছাত্রীর মনে। তাদের সবাইকে, এবং বেশির ভাগকেই, আমি চিনি না; তাদের কাছে আমিও অচেনা।...

প্রিয় শিক্ষক সোলায়মান স্যার

সোলাইমান স্যার ইংরেজি বিষয়টা ছাত্রদের অজান্তেই তাদের মধ্যে ঢুকিয়ে দিতে পারতেন। যারা পরিশ্রম করতে পারত তাদের বিফল হওয়ার সুযোগ ছিল না। চর্চা চর্চা এবং চর্চা- এই ছিল একমাত্র অস্ত্র।

আমার দেখা ব্যারিস্টার বাদল রশীদ

'ব্যারিস্টার চাচা' কোথায় যেন সরকারি অনুষ্ঠানে যাবেন। টাই পরা। আমি সেই প্রথম টাই দেখে বিস্মিত হই। আব্বাকে জিজ্ঞেস করলাম ওঁর গলায় ওটা কী। আব্বা বললেন, "নেকটাই। ব্যারিস্টাররা পরে।" আমি টাই ও বুঝি না ব্যারিস্টারও বুঝি না ! তবু চুপ করে থাকলাম। আমি তখন ৮/৯ বছরের শিশু।

সোশ্যাল লিংক

3,590FansLike
567FollowersFollow
765FollowersFollow
456FollowersFollow
765SubscribersSubscribe

সর্বাধিক জনপ্রিয়

সর্বাধিক পঠিত

সব পোষ্ট

হ্যাঁ আমি সামাজিক সম্পর্ক হ্রাস নিয়ে কথায় বলছি। আমরা যেনো কোথায় হারিয়ে যাচ্ছি আস্তে আস্তে! নিজেদের প্রতিবেশী, পাড়া/মহল্লা, গ্রাম এমনকি পরিচিত কাওকে বিপদে পড়তে দেখলেও আমরা আর এগিয়ে যায়না আজ,খোজই তো রাখিনা কারও।
আমরা দেখতে পাই আমাদের আলমডাঙ্গার সমাজ জীবনের পরতে পরতে একসময় নানা ধরণের লোকজ তন্ত্রমন্ত্র ব্যবহার হতো, ক্ষীণ ধারায় এখনও আছে। এমন কি পিঠা নষ্ট করার পর্যন্ত মন্ত্র আছে।
ভ্যাকসিনেশনের সুবিধার্থে আলমডাংগা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের (হারদি হাসপাতাল) পাশাপাশি এখন থেকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদান চলবে আলমডাংগা থানার সামনে অবস্থিত আলমডাংগা উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। ভ্যাকসিন গ্রহণ করতে নিজে রেজিস্ট্রেশন করুন এবং অন্যকে উৎসহিত করুন।
আলমডাঙ্গা উপজেলা শহর থেকে মাত্র তিন কিলোমিটার দূরে কুমারী ইউনিয়নে ১০ দশমিক চার একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত ভেটেরিনারি ট্রেনিং ইনস্টিটিউট। ১৯৭৮ সালে ডেনমার্ক সরকারের...
একাত্তরের গণহত্যা নিয়ে বিভিন্ন ধরনের যত নৃশংসতার যত মানবতাবিরোধী অপরাধ ও জেনোসাইডের ঘটনা ঘটেছে তার প্রমাণ মিলেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল ও বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালতে।
বেহাল শাহ এর রচিত গানের সঠিক সংখ্যা নিরুপন করা কঠিন। এ যাবৎ তার গানের সামান্যতম অংশ বিভিন্ন গবেষকরা সংগ্রহ করেছেন। আর অধিকাংশ রচনা বাউল শিল্পীদের মুখে মুখে।
গত দুই পর্বে আমি ডায়াবেটিস ও তার জটিলতা সম্পর্কে বলেছি। যদি আপনারা আমার লেখাগুলো পড়ে থাকেন, (না পড়ে থাকলে ডায়াবেটিস ও উচ্চরক্তচাপঃ ভয়ঙ্কর দু'টি...
আলমডাঙ্গার বন্ডবিল গ্রামের এলাহী সাপুড়ে । এই মানুষটা সাপের টুটি চেপে ধরে খেলা দেখিয়ে আলমডাঙ্গা এলাকার মানুষকে আনন্দ দিয়েছে।
দেশে ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়া ধর্ষণ পরিস্থিতির প্রতিবাদে আজ রবিবার জামজামি বাজারে জামজামি ইউনিয়ন ছাত্র সমাজ কালো মাস্ক পড়া অবস্থায় ধর্ষণ বিরোধী মানববন্ধন এবং মৌন...
ডায়াবেটিসে আক্রান্তের হার বাড়ছে কেন? ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ; ভয়ঙ্কর দু'টি নীরব ঘাতক (পর্ব-০১) -এ আমি বলেছিলাম ডায়াবেটিসে আক্রান্তের হার প্রতিনিয়তই বাড়ছে। বাংলাদেশে প্রতি...
আলিফউদ্দিন মোড় থেকে প্রধান সড়কে সকলের সাথে সমবেত হয়ে একাত্মতা ঘোষনা করে প্রতিবাদ জানান আলমডাঙ্গার সকল স্তরের মানুষ।
ডায়াবেটিসে আক্রান্ত মানুষের মধ্যে শতকরা প্রায় ৬০ জনের কোন উপসর্গ থাকে না (এ জন্য দেখে থাকবেন আপনাদের এ জাতীয় কোন সমস্যা না থাকলেও অনেক...
- Advertisement -